বিজ্ঞপ্তি:
"কুমিল্লা টাইমস টিভিতে" আপনার প্রতিষ্ঠান অথবা নির্বাচনী প্রচারনার জন্য এখনি যোগাযোগ করুন : ০১৬২২৩৮৮৫৪০ এই নম্বরে
শিরোনাম:
কুমিল্লায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে আইনি সহায়তার ঘোষণা ১১ বছর পর ব্যবসায়ী ফারুক হত্যা মামলার রায় ডাকাতির ঘটনায় মোবাইল হারানোর জিডি নিলো পুলিশ কুমিল্লায় মায়ের কোপে মেয়ে খুন! মুরাদনগরে ভূমি সেবা সপ্তাহের সমাপনী; শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তাদের সম্মাননা প্রদান ঢাকাস্থ মুরাদনগর ছাত্রকল্যাণ পরিষদের সভাপতি আমিন ও সাধারণ সম্পাদক হাবিব শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় নার্গিস আফজালকে চিরো বিদায় ধর্ষণ মামলায় কুমিল্লা থেকে প্রিন্স মামুন গ্রেফতার ব্যবসায়ীকে তিন দিনের মধ্যে মেরে ফেলার হুমকি, নিরাপত্তা চেয়ে থানায় অভিযোগ অনিয়মের সংবাদ প্রকাশে সুফল পাচ্ছে এলাকাবাস কুমিল্লায় বিএনপির দুই গ্রুপে সংঘর্ষ, গুলি-ককটেল বিস্ফোরণ বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবসে কুমিল্লায় সম্মাননা পেলেন ৭ সংবাদকর্মী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ১৭জন প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র দাখিল কুমিল্লায় তীব্র গরমে একই বিদ্যালয়ের ৭ শিক্ষার্থী অসুস্থ মুরাদনগরে নাগরিক ঐক্য পরিষদের প্রার্থী ঘোষনা

মুরাদনগরে নির্বাচনী গণসংযোগে হামলা গুলি বর্ষণ

  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৭৬৬ বার পড়া হয়েছে
মুরাদনগরে নির্বাচনী গণসংযোগে হামলা গুলি বর্ষণ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার রামচন্দ্রপুর উত্তর ইউনিয়নের উপনির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মাওলানা আবু বকরের গণসংযোগে হামলা, গুলিবর্ষণ এবং ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার সন্ধ্যায় ওই ইউনিয়নের জায়েদ আলী মার্কেট এলাকায় গণসংযোগকালে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

এতে ১৮টি মোটরসাইকেল ভাংচুর এবং ১৫ নেতাকর্মীকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ করা হয়। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা বিরাজ করছে। এতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

স্বতন্ত্র প্রার্থী মাওলানা আবু বকর অভিযোগ করে বলেন, ওই ইউনিয়নের সাহেবনগর এলাকায় গণসংযোগ শেষে আমি রামচন্দ্রপুর বাজারে ফিরছিলাম। কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকার ও নৌকার মনোনীত প্রার্থী ইকবাল হোসেন সরকারসহ বিপুলসংখ্যক দলীয় নেতাকর্মী নিয়ে চাপিতলা গ্রামে যাচ্ছিলেন।

তিনি জানান, এ সময় আমার গণসংযোগ দেখে তারা গাড়ি থেকে নেমে অতর্কিত হামলা চালায়। এতে ১৮টি মোটর সাইকেল ভাংচুর করে আমাদের ওপর গুলিবর্ষণ করা হয়। এ ঘটনায় তিনি বাঙ্গরাবাজার থানায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও জানান।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে চেয়ারম্যান প্রার্থী ইকবাল হোসেন সরকার জানান, তিনি এবং তার চাচা জাহাঙ্গীর আলম সরকারসহ নেতাকর্মীদের পক্ষ থেকে কোনো প্রকার হামলা করা হয়নি। ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী আবু বকর নিজেই একটি ঘটনার সৃষ্টি করে ঘোলাপানিতে মাছ শিকারের পাঁয়তারা করছে।

বাঙ্গরাবাজার থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু বকরের গণসংযোগে হামলা করা হয়েছে বলে আমি শুনেছি। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তবে এখনও লিখিত কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


কুমিল্লা টাইমস’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

বিজ্ঞাপন

সকল স্বত্বঃ কুমিল্লা টাইমস কতৃক সংরক্ষিত

Site Customized By NewsTech.Com