বিজ্ঞপ্তি:
"কুমিল্লা টাইমস টিভিতে" আপনার প্রতিষ্ঠান অথবা নির্বাচনী প্রচারনার জন্য এখনি যোগাযোগ করুন : ০১৬২২৩৮৮৫৪০ এই নম্বরে
শিরোনাম:
মুরাদনগরে স্কুল ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত, যুবক গ্রেপ্তার মুরাদনগরে সুপ্রীমকোর্টের নির্দেশ অমান্য করায় স্বরাষ্ট্রসচিবসহ ১৩ জনকে উকিল নোটিশ মুরাদনগরে গ্রামীণ ঐতিহ্যের শীতকালীন পিঠা উৎসব কুমিল্লার বাঙ্গরায় জেলা পরিষদের সুপার মার্কেটের শুভ উদ্বোধন মুরাদনগরে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনিমার্ণ ও মানসম্মত শিক্ষাকরনে সভা মুরাদনগরে জমির মাটি রক্ষা করতে গিয়ে কৃষক খুন প্রেমিক-প্রেমিকা একসঙ্গে বিষপান, প্রেমিকার মৃত্যু বাঙ্গরায় গাঁজাসহ ৩ নারী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার মুরাদনগরে ডাকাত সন্দেহে দুই যুবকে পিটিয়ে হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন শাঁখা—সিঁদুর পরে পূজামণ্ডপে গিয়ে সোনার চেইন ছিনতাই: ৩ মুসলিম নারী আটক সোনারামপুর যুব উন্নয়ন সমবায় সমিতির প্রথন প্রতিষ্ঠা বার্ষিকি পালিত মুরাদনগরে গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক বাঙ্গরাবাজার থানা যুবলীগের উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরন কুমিল্লা পেশাজীবী সাংবাদিক ইউনিয়নের নতুন কমিটি ঘোষণা মুরাদনগরে ডাকাত সন্দেহে গণপিটুনিতে দুই যুবকের মৃত্যু

মণিরামপুর ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্য বিবাহ বন্ধ

  • আপডেটের সময় : রবিবার, ৯ আগস্ট, ২০২০
  • ২৭০ বার পড়া হয়েছে

যশোর জেলা প্রতিনিধি:

করোনা ভাইরাস মহামারী আকার ধারণ করলেও মনিরামপুর উপজেলায় থেমে নেই বাল্যবিবাহ। এমত অবস্থায় প্রশাসন যখন উপজেলায় করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে ব্যস্ত এরই মধ্যে প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে বিভিন্ন এলাকায় চলছে বাল্যবিবাহের হিড়িক। তবে উপজেলা প্রশাসন বাল্যবিবাহ রুখতে সদা তৎপরতা রয়েছে ৷

গতকাল মণিরামপুরে নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া ১৪ বছর বয়সী এক স্কুলছাত্রীর বাল্যবিয়ের আয়োজন করে পরিবারের লোকজন ৷ ওই ছাত্রীর বিয়ের কাজ সম্পাদনের জন্য নেহালপুরে কনের বাড়িতে আয়োজন চলছিল। খবর পেয়ে সন্ধ্যায় আয়োজন বন্ধ করে দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার সৈয়দ জাকির হাসান।

উপজেলা মহিলাবিষয়ক অফিসের ক্রেডিট সুপারভাইজার শহিদুল ইসলাম বলেন, মেয়েটি নেহালপুরের কালিবাড়ি এলাকার শাহিদা সুলতানা বালিকা বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী। করোনাকালীন লকডাউনের কারণে স্কুল বন্ধ থাকার সুযোগে মেয়েটির বাবা একই উপজেলার জুড়ানপুর গ্রামের জনৈক ইনামুল ইসলাম নামে এক যুবকের সঙ্গে তার বিয়ে ঠিক করেন। সন্ধ্যায় বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। বিকেলে বরপক্ষ ওই বাড়িতে আসেন।

কিন্তু তার আগেই ইউএনও বিষয়টি জানতে পারেন। তার নির্দেশে বিকেলে আমি, স্থানীয় মেম্বার আজগার আলীসহ দুই চৌকিদার ওই বাড়িতে যাই। আমাদের দেখে বরপক্ষ পালিয়ে যায়। আমরা উপস্থিত থেকে বিয়ের আয়োজন বন্ধ করি। পরে ইউএনও স্যারের কাছে মুচলেকা দেন মেয়েটির বাবা।’

উপজেলা নির্বাহী অফিসার সৈয়দ জাকির হাসান বলেন, ‘নেহালপুরে ১৪-১৫ বছর বয়সী এক স্কুলছাত্রীর বিয়ের কার্যক্রম চলার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিয়েছি। ১৮ বছর বয়স না হওয়া পর্যন্ত মেয়ের বিয়ে দেবেন না বলে মেয়েটির বাবা অঙ্গীকার করেছেন ৷ বাল্যবিয়ের ঘটনায় কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না আগামীতে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে ৷


কুমিল্লা টাইমস’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

বিজ্ঞাপন

সকল স্বত্বঃ কুমিল্লা টাইমস কতৃক সংরক্ষিত

Site Customized By NewsTech.Com