বিজ্ঞপ্তি:
"কুমিল্লা টাইমস টিভিতে" আপনার প্রতিষ্ঠান অথবা নির্বাচনী প্রচারনার জন্য এখনি যোগাযোগ করুন : ০১৬২২৩৮৮৫৪০ এই নম্বরে
শিরোনাম:
মুরাদনগরে গোল্ডেন জিপিএ—৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের মাঝে ল্যাপটপ বিতরণ রাতের আধারে মাটি কাটায় ইটভাটাকে ২ লাখ টাকা জরিমানা মুরাদনগরে কৃষক হত্যার প্রধান আসামি গ্রেপ্তার কুমিল্লা-সিলেট সড়কে ইটভাটার মাটিতে ঘটছে দুর্ঘটনা ৩ বছরেও চালু হয়নি অর্ধকোটি টাকার বায়োমেট্রিক হাজিরাযন্ত্র শ্রীকাইল সরকারি কলেজে নবীন বরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে রামচন্দ্রপুর অধ্যাপক আবদুল মজিদ কলেজে নবীন বরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত মুরাদনগরে ভুমি খেকোর হাতে বিনষ্ট প্রায় ৭শ বিঘা ফসলি জমি মুরাদনগরে ২ শিশুকে হত্যা; নারীর মৃত্যুদণ্ড যাবজ্জীবন ১ মুরাদনগরে দিনব্যাপী অভিযানে ৪টি ড্রেজার মেশিন জব্দ মুরাদনগরে বখাটের হাতে জিম্মি প্রবাসী পরিবার মুরাদনগরে স্কুল ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত, যুবক গ্রেপ্তার মুরাদনগরে সুপ্রীমকোর্টের নির্দেশ অমান্য করায় স্বরাষ্ট্রসচিবসহ ১৩ জনকে উকিল নোটিশ মুরাদনগরে গ্রামীণ ঐতিহ্যের শীতকালীন পিঠা উৎসব কুমিল্লার বাঙ্গরায় জেলা পরিষদের সুপার মার্কেটের শুভ উদ্বোধন

জীবনের শেষ স্ট্যাটাস ফেসবুকে লিখে তরুণের আত্মহত্যা

  • আপডেটের সময় : রবিবার, ১২ জুলাই, ২০২০
  • ৭২৯ বার পড়া হয়েছে
ফিরোজ আলম তুহিন

ফয়সাল, স্টাফ রিপোর্টঃ

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জের হাসনাবাদ ইউনিয়নের আশিয়াদারি গ্রামের ফিরোজ আলম তুহিন (২৫) নামক এক ছেলে ফেসবুকে তার জীবনের শেষ স্ট্যাটাস লিখে আত্যহত্যা করেছেন। তার ফেসবুকে দেয়া স্ট্যাটাসের শিরোনামে ছিলো “জীবনের শেষ স্ট্যাটাস লিখেই গেলাম”। স্ট্যাটাসটি তার নিজের ফেসবুক ওয়ালে পোস্টদিয়ে সে বিষপান করে আত্মহত্যা করেন। এই তরুন আশিয়াবাদ গ্রামের তোসলিম হোসেন সেলিমের একমাত্র ছেলে।

জানা যায়, ফিরোজ আলম তুহিন চাঁদপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে অধ্যায়নরত ছিলেন। ফেসবুকের স্ট্যাটাস সূত্রে জানা যায়, পরিবারের চাপ, তার ভবিষ্যৎ এর কথা চিন্তা, চাকুরি, জীবন সঙ্গিনী ইত্যাদি বিষয়াদি নিয়ে ডিপ্রেশনে ভূগছিলেন। গত ৩ মাস ধরে এসব নানান চিন্তা ভাবনা ও মানষিক চাপ সহ্য করতে না পেরে আত্যহত্যার পথ বেছে নেন তুহিন আলম ফিরোজ।

সে তার স্ট্যাটাসে লিখে ছিলো – জীবনের শেষ স্ট্যাটাস লিখেই গেলাম! আসলে আমি কি?

জীবনে না পারলাম বাবা ও মায়ের ভালো একজন সন্তান হতে! না পারলাম আদোরে বোনদের কাছে ভালো একজন ভাই হতে, আর না পেরেছি আত্মিয়-স্বজনদের কাছে ভালো কেউ হতে। এমন কি কারো কাছেই কারো মনের মতো হতে পারিনি, যদিও একজের কাছে আমি খুব প্রিয় কিন্তু তার পরিবারের কাছে হতে পারিনি যোগ্য। এই জীবনে শুধু সমস্যা আর সমস্যা! পরিবারের চাপ, ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তা ভাবনা, চাকুরি, জীবন সঙ্গিনী এতো ডিপ্রেশন সব মিলিয়ে মনে হয় দম বন্ধ হয়ে আসছে।

এমন আরো অনেক অভিযোগ ছিলো তার ফেসবুক পোষ্টে, তার মনে চেপে রাখা অনেক কথা তার ফেসবুকে লিখে সবার কাছে বিদায় নিয়ে আত্মহত্যার পথ বেছেনেন ফিরোজ আলম তুহিন।


কুমিল্লা টাইমস’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

বিজ্ঞাপন

সকল স্বত্বঃ কুমিল্লা টাইমস কতৃক সংরক্ষিত

Site Customized By NewsTech.Com