1. admin@comillatimes.com : Comilla Times : Comilla Times
  2. fm.polash@gmail.com : Foyshal Movien Polash : Foyshal Movien Polash
  3. lalashimul@gmail.com : Sazzad Hossain Shimul : Sazzad Hossain Shimul
কুমিল্লা মুরাদনগরের ধর্মীয় অবমামনার অভিযোগে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় গণশুনানী অনুষ্ঠিত | Comilla Times
ব্রেকিং নিউজ
"কুমিল্লা টাইমস টিভিতে" আপনার প্রতিষ্ঠান অথবা নির্বাচনী প্রচারনার জন্য এখনি যোগাযোগ করুন : ০১৬২২৩৮৮৫৪০ এই নম্বরে
শিরোনাম:
কুবিতে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা: দুশ্চিন্তার নাম ছিনতাই ছিনতাইয়ের কবলে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়র শিক্ষার্থী হারিয়েছি : গুরুপ্তপূর্ন কাগজ পত্রসহ পাসপোর্ট হারিয়েছি আধুনিকতার ছোঁয়া হারিয়ে যাচ্ছে মৃৎশিল্প মুরাদনগরে হত্যা মামলার পলাতক আসামী গ্রেফতার সফল হউক মা ইলিশ রক্ষার অভিযান মুরাদনগরে বিশ্ব শিক্ষক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে কুবির সাবেক শিক্ষার্থীর মৃত্যু মুরাদনগরে ধর্ষণের অভিযোগে প্রবাসী গ্রেপ্তার, বেলা শেষে অর্থের বিনিময়ে রফাদফা মুরাদনগরে অগ্নিকান্ডে দুটি দোকান ভস্মীভূত মুরাদনগরে জাতীয় কন্যা শিশু দিবস পালিত প্রধানমন্ত্রীর ৭৫ তম জন্মবার্ষিকী কুবিতে ৭৫ টি বৃক্ষরোপণ শেখ হাসিনার জন্মদিনে কুবি ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল কুবির দত্ত হলে মধ্যরাতে দেশীয় অস্ত্রসহ বহিরাগত যুবক প্রবেশ কুবি শিক্ষার্থী বাসের সাথে মাইক্রোবাসের সংঘর্ষ

কুমিল্লা মুরাদনগরের ধর্মীয় অবমামনার অভিযোগে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় গণশুনানী অনুষ্ঠিত

  • আপডেটের সময় : শনিবার, ৭ নভেম্বর, ২০২০
  • ৪৬৫ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার মুরাদনগরে ফ্রান্স সরকারের ইসলাম বিদ্বেষী নীতিকে সমর্থন করে ফেইসবুকে পোষ্ট ও মন্তব্যের জেরে মন্দির ও একাদিক হিন্দু বাড়ীতে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় গণশুনানী হয়েছে।

গত সোমবারে এই ঘটনায় বাঙ্গরা বাজার থানায় ৪টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। বাঙ্গরা বাজার থানার পূর্বধইর পূর্ব ইউনিয়নের কোরবানপুর গ্রামের অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মধ্যে ইউপি চেয়ায়ম্যান অধ্যাপক বন কুমার শিব, স্বদীপ কুমার শিব, লিটন দেবনাথ এবং ভারতী দেবনাথ বাদী হয়ে পৃথক ৪ টি মামলায় করেন। এতে মোট নামসহ এবং অজ্ঞাত প্রায় ১২৮২ জনকে আসামী করা হয়।

উক্ত ঘটনায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে শুক্রবার কোরবানপুর গ্রামের অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বন কুমার শিবের বাড়ীতে গণশুনানীর আয়োজন হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মুরাদনগর সার্কেল) জাহাঙ্গীর আলম, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) সাইফুল ইসলাম কমল, বাঙ্গরা বাজার থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুজ্জামান তালুকদার, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) অমর চন্দ্র দাশ, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম সরকার, পূর্বধইর পূর্ব ইউপি চেয়ায়ম্যান বন কুমার শিব, পূর্বধইর পশ্চিম ইউপি চেয়ারম্যান শরিফুল ইসলাম, আন্দিকুট ইউপি চেয়ায়ম্যান ওমর ফারুক প্রমূখ।

কুমিল্লার মুরাদনগরের ৪ নম্বর পূর্বধইর পূর্ব ইউনিয়নের কোরবানপুরে অগ্নিকাণ্ড ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছিল মূলত রাজনৈতিক ও নির্বাচনী দ্বন্দ্বের কারণে। সাম্প্রদায়িক কারণে নির্যাতনের ঘটনা ঘটেনি। সহিংসতার জেরে অনুষ্ঠিত গণশুনানিতে অংশ নেওয়া স্থানীয় লোকজন এই বক্তব্য দিয়েছেন। ঘটনার তদন্তে শুক্রবার বিকেল ৩টা থেকে ৫টা পর্যন্ত গণশুনানি করেন উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইফুল ইসলাম কমল। এতে উপস্থিত ৬০০ জনের মধ্যে ৩২ জন লিখিত বক্তব্য দেন।

গণশুনানিতে অংশ নিয়ে পূর্বধইর পূর্ব ইউপি চেয়ারম্যান বন কুমার শিব বলেন, শুরুটা সাম্প্রদায়িক ইস্যু নিয়েই হয়েছিল। পরে রাজনৈতিক ফায়দা লোটার জন্য সহিংসতা ঘটানো হয়।

সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত সুবেদার আব্দুল আজিজ বলেছেন, চেয়ারম্যানের বাড়িতে যে ধরনের লুটতরাজ করা হয়েছে তা সম্পূর্ণ রাজনৈতিক। কারণ চেয়ারম্যান বন কুমার শিব দুইবার নির্বাচিত। এ ধরনের ন্যক্কারজনক ঘটনা কেউ মেনে নিতে পারছে না। এর দৃষ্টান্তমূলক বিচার হওয়া দরকার।

স্থানীয় তপন মিয়া বলেন, বন কুমার শিবকে পুড়িয়ে মারার জন্যই বাড়িতে হামলা ও আগুন দেওয়া হয়েছে। কারণ বর্তমান চেয়ারম্যানকে মেরে ফেলতে পারলে সুবিধাভোগীদের লাভ হবে। এই ঘটনায় বিএনপি, জামায়াত-শিবিরের পাশাপাশি আওয়ামী লীগেরও একটি অংশ জড়িত ছিল। তারা সবাই মিলে পরিকল্পিতভাবে হামলা করেছে।

স্থানীয় বাচ্চু ডাক্তার বলেন, আমাদের এলাকাটি ছিল সম্প্রীতির বন্ধনে আবদ্ধ। হঠাৎ কিছু লোক আক্রমণ করে এই সম্প্রীতিতে ভাঙন ধরিয়েছে। আমি চাই, এই ঘটনার সুষ্ঠ বিচার হোক এবং স্থানীয় হিন্দুরা এখানে আগের মতোই সহাবস্থান করবে।

মুরাদনগর সার্কেলের এএসপি জাহাংগীর আলম বলেন, গত ১ নভেম্বর অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত করতে চাই। এ জন্য গণশুনানির পাশাপাশি তদন্তও চলছে। আশা করি, প্রকৃত দোষীদের আইনের আওতায় আনা হবে।

গত ১ নভেম্বর কোরবানপুরে হিন্দু সম্প্রদায়ের ছয়টি বাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। সহিংসতার ঘটনার নতুন করে ৩ জনকে আটকের আদালতের মধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। শুক্রবারে আটকৃত আসামীরা হলেন: কোরবানপুর গ্রামের সেলিম মিয়া, নবীয়াবাদ গ্রামের মোঃ বাতেন মিয়া এবং মোঃ নুর মিয়া। এ পর্যন্ত এ ঘটনায় মোট ১৫ জন আসামী কারাগারে রয়েছেন।

 


কুমিল্লা টাইমস’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

বিজ্ঞাপন

সকল স্বত্বঃ কুমিল্লা টাইমস কতৃক সংরক্ষিত

Site Customized By NewsTech.Com
x
error: CONTENT IS PROTECETED !!