বিজ্ঞপ্তি:
"কুমিল্লা টাইমস টিভিতে" আপনার প্রতিষ্ঠান অথবা নির্বাচনী প্রচারনার জন্য এখনি যোগাযোগ করুন : ০১৬২২৩৮৮৫৪০ এই নম্বরে
শিরোনাম:
মুরাদনগরে বসুন্ধরা শুভসংঘের উদ্যোগে সেলাই প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের উদ্বোধন ‘বাবা, আমাদের বাঁচাও বলে চিৎকার করছিল আমার দুই মেয়ে’ বেইলি রোডের অগ্নিকান্ড; খাবার আনতে গিয়ে প্রাণ হারাল মুরাদনগরের পম্পা সারাদেশে সেরা হলো কুমিল্লা জেলা পুলিশ অস্তিত্ব সংকটে তিতাস নদী, রূপ নিয়েছে আবাদি জমিতে কুমিল্লা জেলা পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন, কোম্পানিগঞ্জ শাখার কমিটি গঠন বিরল সূর্যগ্রহণ, দিন হবে রাতের মতো অন্ধকার! মুরাদনগরে পরীক্ষায় নকল দিতে গিয়ে ৩জন আটক; ২বছরের সাজা মার্কিন প্রতিনিধি দলের কৃষি কার্যক্রম পরিদর্শন মুরাদনগরে ভাষা শহীদদের স্মরনে প্রভাতফেরি আজ থেকে এক মাস বন্ধ সব কোচিং সেন্টার মুরাদনগরে স্থানীয় সম্পদ আহরণ ও ব্যবস্থাপনা বিষয়ক কোর্সের উদ্বোধন কুমিল্লায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫ টেলিভিশন জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, কুমিল্লার নতুন কমিটি ঘোষনা মুরাদনগরে অবৈধ সীসা কারখানা সিলগালা, দুই লক্ষ টাকা জরিমানা

কুমিল্লায় চাকরি থেকে অব্যাহতির ক্ষোভে অফিসারকে ছুরিকাঘাতে খুন

  • আপডেটের সময় : শনিবার, ১ মে, ২০২১
  • ৫২৩ বার পড়া হয়েছে
কুমিল্লায় চাকরি থেকে অব্যাহতির ক্ষোভে অফিসারকে ছুরিকাঘাতে খুন

ফয়সাল মবিন পলাশ:

কুমিল্লায় অনিয়মের অভিযোগে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়ার ক্ষোভে ইপিজেডের একটি বিদেশি কোম্পানির অফিসারকে ছুরিকাঘাতে খুন করা হয়েছে।

নিহত খায়রুল বাসার সুমন (৩২) কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার গলিয়ারা ইউনিয়নের মান্দারি গ্রামের মোহাম্মদ মমিন মাস্টারের তৃতীয় ছেলে। সুমন কুমিল্লা ইপিজেডে সিং সাং সু নামে একটি চায়না কোম্পানিতে এইচ আর অফিসার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) বিকেলে ইপিজেড থেকে বাড়ি ফেরার পথে ইপিজেড গেইট সংলগ্ন রোসা ও স্বপ্ন সুপার সপের সামনে সুমনকে ছুরিকাঘাত করা হয়। আহত অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তিনি মারা যান।

নিহত সুমনের চাচাতো ভাই আলামিন জানান, সুমনের সাথে কারো শত্রুতা নেই। কে বা কারা তাকে ছুরিকাঘাত করেছেন আমরা এখনও বলতে পারছি না। তবে তার সহকর্মীদের কাছ থেকে জানতে পেরেছি তার কোম্পানিতে অনিয়মের অভিযোগে এক ব্যক্তিকে চাকরি থেকে অব্যাহত দেওয়া হয়। যাকে অব্যাহতি দিয়েছেন ওই ব্যক্তি ক্ষোভে সুমনকে ছুরিকাঘাত করেন। সুমনের নিয়ে আমরা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রয়েছি।

খুনের বিষয়ে সদর দক্ষিণ থানার তদন্ত কর্মকর্তা অমল কৃষ্ণ ধর বলেন, ইপিজেড গেইট সংগলœ রোসা ও স্বপ্ন সুপার সপের সামনে সুমন নামে এক ব্যক্তিকে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে এই ব্যক্তি মারা যান। তিনি কুমিল্লা ইপিজেডের একটি কোম্পানিতে অফিসার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। কে বা কারা কি কারণে তাকে ছুরিকাঘাত করেছেন তা নিয়ে আমরা তদন্ত করছি। পরিবার থেকে এখনও কোন অভিযোগ দায়ের করেননি। মরদেহ মেডিক্যালের মর্গে রয়েছে।


কুমিল্লা টাইমস’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

বিজ্ঞাপন

সকল স্বত্বঃ কুমিল্লা টাইমস কতৃক সংরক্ষিত

Site Customized By NewsTech.Com