বিজ্ঞপ্তি:
"কুমিল্লা টাইমস টিভিতে" আপনার প্রতিষ্ঠান অথবা নির্বাচনী প্রচারনার জন্য এখনি যোগাযোগ করুন : ০১৬২২৩৮৮৫৪০ এই নম্বরে
শিরোনাম:
কুমিল্লায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে আইনি সহায়তার ঘোষণা ১১ বছর পর ব্যবসায়ী ফারুক হত্যা মামলার রায় ডাকাতির ঘটনায় মোবাইল হারানোর জিডি নিলো পুলিশ কুমিল্লায় মায়ের কোপে মেয়ে খুন! মুরাদনগরে ভূমি সেবা সপ্তাহের সমাপনী; শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তাদের সম্মাননা প্রদান ঢাকাস্থ মুরাদনগর ছাত্রকল্যাণ পরিষদের সভাপতি আমিন ও সাধারণ সম্পাদক হাবিব শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় নার্গিস আফজালকে চিরো বিদায় ধর্ষণ মামলায় কুমিল্লা থেকে প্রিন্স মামুন গ্রেফতার ব্যবসায়ীকে তিন দিনের মধ্যে মেরে ফেলার হুমকি, নিরাপত্তা চেয়ে থানায় অভিযোগ অনিয়মের সংবাদ প্রকাশে সুফল পাচ্ছে এলাকাবাস কুমিল্লায় বিএনপির দুই গ্রুপে সংঘর্ষ, গুলি-ককটেল বিস্ফোরণ বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবসে কুমিল্লায় সম্মাননা পেলেন ৭ সংবাদকর্মী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ১৭জন প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র দাখিল কুমিল্লায় তীব্র গরমে একই বিদ্যালয়ের ৭ শিক্ষার্থী অসুস্থ মুরাদনগরে নাগরিক ঐক্য পরিষদের প্রার্থী ঘোষনা

কুমিল্লায় গৃহকর্মীর শরীরে গরম পানি ঢেলে দিলেন অধ্যক্ষের স্ত্রী

  • আপডেটের সময় : বুধবার, ৪ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ৫২৯ বার পড়া হয়েছে
  • নিজস্ব প্রতিবেদক:

কুমিল্লায় সুমাইয়া (১২) নামে এক গৃহপরিচারিকাকে মারধর করে গায়ে গরম পানি নিক্ষেপ করে ঝলসে দিয়েছেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ আবু তাহেরের স্ত্রী তাহমিনা তুহিন।

মঙ্গলবার (৩ জানুয়ারি) রাতে ধর্মপুর এলাকায় ভিক্টোরিয়া কলেজের পাশে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ আবু তাহেরের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

সুমাইয়া দেবীদ্বার উপজেলার কালিরহাটের হাতিগড়া এলাকার শাহআলম মিয়ার মেয়ে। জন্মের কয়েক বছর পরই সুমাইয়াকে রেখে তার বাবা—মা অন্য জায়গায় আলাদা হয়ে চলে যায়। পরে অন্ধ নানির কাছে থাকে সুমাইয়া।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সুমাইয়া দগ্ধ অবস্থায় বাড়ির দ্বিতীয় তলা থেকে লাফ দিয়ে পড়ে পাশে ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্রীদের মেসে ঢুকে যায়। এ সময় আবু তাহেরে স্ত্রী নিচে নেমে সুমাইয়াকে বাসায় নিয়ে যেতে চাইলে মেসের মেয়েরা গেট লাগিয়ে ফেলে এবং ৯৯৯ এ কল করে পুলিশকে খবর দেয়।

ওই ছাত্রী হলের এক ছাত্রী সময় সংবাদকে বলেন, মেয়েটি দগ্ধ অবস্থায় আমাদের বাসায় ঢুকে। মেয়েটির অবস্থা দেখে আমরা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে মেয়েটিকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে নিয়ে যায়। চিকিৎসার পর মেয়েটিকে কোতোয়ালি থানায় এনে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়। মেয়েটির শরীরে বেত দিয়ে মারার দাগ রয়েছে।

সুমাইয়া জানান, ৪ বছর ধরে অধ্যক্ষ আবু তাহেরের বাসায় কাজ করে সে। কাজে একটু দেরি বা ভুল হলেই আবু তাহেরের স্ত্রী তাহমিনা এবং আবু তাহেরের মেয়ে ফাহমিদা তাহের তিমু বেত্রাঘাত করত, গরম পানি গায়ে নিক্ষেপ করত। গত দুইদিন যাবত তাকে অনেক বেত দিয়ে আঘাত করেছে তারা। মঙ্গলবার রাতে মারধর করে গায়ে গরম পানি নিক্ষেপ করলে সে বাসা থেকে ছাত্রী মেসে চলে যায়।

তবে ভিক্টোরিয়া কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ আবু তাহের সময় সংবাদকে জানান, তার স্ত্রী তাহমিনা এই কাজ করেনি। গরম পানি ঢালতে গিয়ে নিজের ওপর পানি পড়ে।

এ বিষয়ে কুমিল্লা কোতোয়ালি থানার পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত মো. হানিফ সরকার সময় সংবাদকে বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন। বর্তমানে মেয়েটি থানায় পুলিশ হেফাজতে আছে। এ ঘটনায় শিশু আইনে মামলা প্রক্রিয়াধীন।


কুমিল্লা টাইমস’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

বিজ্ঞাপন

সকল স্বত্বঃ কুমিল্লা টাইমস কতৃক সংরক্ষিত

Site Customized By NewsTech.Com